বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০৭:১৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
ড্রাগন চাষে সফলতার নতুন গল্প নেছারাবাদের চাষীদের। দৈনিক শীর্ষ সংবাদ সাম্প্রদায়ীক সম্প্রীতির বন্ধন অটুট রেখে দুর্গা পূজা অনুষ্ঠিত হবে ——মৎস্য ও প্রানী সম্পদ মন্ত্রী নাদিরা বেগমের শারীরিক সুস্থতা কামনায় এনপিপির  দোয়া মোনাজাত বিনা প্রতিদ্বন্দিতার নির্বাচন গণতন্ত্রের বিকাশ নষ্ট হচ্ছে -শেখ ছালাউদ্দিন ছালু নেছারাবাদের মশারি শিল্পকে টিকিয়ে রাখতে দরকার সরকারি সহযোগি।দৈনিক শীর্ষ সংবাদ আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর পরিদর্শন করেন পিরোজপুর জেলা প্রশাসক পল্লীবিদ্যুতের যন্ত্রাংশ ও শ্রমিকদের থাকার স্থান এখন স্কুল নেছারাবাদে স্কুলঘরে মটর সাইকেলের গোডাউন স্বরূপকাঠিতে মৎস্যজীবিদের সঙ্গে মত বিনিময় সভা নেছারাবাদে কৃষি উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় কৃষাণ/কৃষাণীদের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত 

বিনা প্রতিদ্বন্দিতার নির্বাচন গণতন্ত্রের বিকাশ নষ্ট হচ্ছে -শেখ ছালাউদ্দিন ছালু

আনোয়ার শীর্ষ সংবাদ ডেস্ক
  • প্রকাশের সময়ঃ শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১৩ জন দেখেছেন
ন্যাশনাল পিপলস্ পার্টি (এনপিপি)’র অংঙ্গ সংগঠন ন্যাশনাল পিপলস্ যুব পার্টি’র দ্বিতীয় কেন্দ্রীয় সম্মেলন আজ শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের আব্দুস সালাম হল রুমে অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ন্যাশনাল পিপলস্ পার্টি (এনপিপি) ও এর নেতৃত্বাধীন জোট ন্যাশনালিস্ট ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (এনডিএফ)’র চেয়ারম্যান জননেতা আলহাজ্ব শেখ ছালাউদ্দিন ছালু ।
এ সময় ছালু বলেন, বিনা প্রতিদ্বন্দিতার নির্বাচন গণতন্ত্রের বিকাশ নষ্ট হচ্ছে।
তিনি আরো বলেন,বর্তমান সমসাময়িক রাজনীতির কিছু প্রবণতা উল্ল্যেখ করে জননেতা শেখ ছালাউদ্দিন ছালু বলেন,  ইদানিং আপনারা দেখছেন বিনা প্রতিদ্বন্দিতার নির্বাচন। এর পরিপ্রেক্ষিতে গণতন্ত্রের বিকাশ নষ্ট হচ্ছে এবং নির্বাচন কমিশন ও নির্বাচন ব্যবস্থা প্রশ্নবিদ্ধ হচ্ছে। এক দলীয় শাসন এর দিকে দেশ ধাবিত হচ্ছে। এই বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় নির্বাচন শুরু হয়েছে ২০১৪ সালে, বিএনপি ও বিশ দলীয় জোট নির্বাচনে না যাওয়ার কারনে। যার প্রেক্ষিতে বিশ দলীয় জোট একটি নিথর জোটে পরিণত হয়েছে। আর ২০১৮ সালের নির্বাচনে বিএনপি ঐক্যফ্রন্টে যোগ দিয়ে এবং ডঃ কামাল হোসেনকে নেতা মেনে যে নির্বাচন করেছে তার মধ্য দিয়ে বিশ দলীয় জোট নিস্তব্ধ ও মৃত্যুপ্রায় একটি সংগঠনে পরিণত হয়েছে। কিন্তু এখনও বাংলার জনগণ বিএনপিকে বিরোধীদল মনে করে। জাতীয় পার্টিকে বিরোধীদল মনে করে না। তিনি আরো বলেন,
মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, জাতীয়তাবাদ ও  ধর্মীয় মূল্যবোধের ভিত্তিতে বিকল্প রাজনৈতিক শক্তি গড়ে তোলা। আপনারা জানেন এরই মধ্যে হাটি হাটি পা পা করে সারা বাংলাদেশে এনপিপি’র কার্যক্রম এগিয়ে চলছে। ৬৪ জেলার মধ্যে ৫৬ জেলায় আমাদের কমিটি এবং ৪০ জেলায় দলীয় অফিস আছে। আমরা দলকে আরো শক্তিশালী করার জন্য অংঙ্গসংগঠন গুলোকে আরো সংগঠিত করার জন্য কাজ করছি। যার পরিপ্রেক্ষিতে আজ যুব পার্টির সম্মেলন হচ্ছে এবং আগামী ১৬ই অক্টোবর মহিলা পার্টির সম্মেলন এবং ধারাবহিক ভাবে এই বছরেই শ্রমিক ও কৃষক পার্টির সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। স্বেচ্ছাসেবক পার্টি ও সাংস্কৃতিক পার্টির কমিটি আছে। এরপর জাতীয় সম্মেলন আছে আমরা সেই লক্ষ্যে কাজ করছি।
দল ও জোটের আগামী দিনের পরিকল্পনা তুলে ধরে তিনি বলেন, ন্যাশনাল পিপলস্ পার্টি (এনপিপি) ২০১৮ সালের সংসদ নির্বাচনে ৮২টি আসনে নির্বাচন করেছে। এনপিপি আগামী ২০২৩ সালের নির্বাচনে যাতে ৩০০ সংসদীয় আসন না হোক ২০০ আসনে প্রতিদ্বন্দিতা করতে পারে সেই লক্ষ্যে আমরা কাজ করছি।
তিনি আরো বলেন, নির্বাচনে অংশগ্রহণ ও প্রতিদ্বন্দিতা করাটাই বড় কথা, জেতা টা বড় কথা না। যার সাহস আছে ও মনোবল আছে সেই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারে। আমরা যাতে বৃহত্তম দল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে পারি সেই জন্য আগামী সংসদ নির্বাচনে ৩০০ আসনে প্রার্থী দিব ইনশাআল্লাহ।
তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষন করে বলেন, আমলাতন্ত্রের দৌরত্ব্য এবং দূণীতি, টেন্ডারবাজি সহ সব অনাচারের লাগাম টেনে ধরতে হবে। আপনারা জানেন আওয়ামী-লীগ নেতা তোফায়েল সাহেব আমলাতন্ত্রের কথা সংসদে তুলে ধরেছিলেন কিন্তু সে কথা কোন কাজে আসেনাই। এই আমলাতন্ত্রের দৌরত্ব্যের কারনে দূর্ণীতি ও মাদক বানিজ্য সীমাহীন ভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে এবং একারনে দেশ ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে পৌছেছে। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন দূর্ণীতি ও মাদক ব্যবসার লাগাম টেনে ধরুন এবং সকল অনাচার কঠিন হস্থে দমন করুন। নাহলে আপনি যে উন্নয়ন করেছেন সে উন্নয়নের সুফল জনগণ পাবে না।
অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন ন্যাশনাল পিপলস্ পার্টি (এনপিপি)’র মহাসচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আব্দুল হাই মন্ডল, স্বাগত বক্তব্য রাখেন ন্যাশনাল পিপলস্ যুব পার্টি’র আহবায়ক ইঞ্জি: কে এম শামছুল আলম মিশুক এবং শোক প্রস্তাব ও সাংগঠনিক রিপোট উপস্থাপন করেন আহবায়ক কমিটির সদস্য সচিব রুহুল আমিন রাহুল। বিশেষ শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন ন্যাশনাল পিপলস্ যুব পার্টির সাবেক সভাপতি এবং এনপিপি’র খুলনা বিভাগীয় সমন্বায়ক শেখ ইকবাল হাসান স্বপন।
আরো বক্তব্য রাখেন, ন্যাশনাল পিপলস্ পার্টি (এনপিপি)’র প্রেসিডিয়াম সদস্য মোঃ ইদ্রিস চৌধুরী, শেখ আবুল কালাম, মোহাম্মদ আনিসুর রহমান দেওয়ান,  জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি (জাগপা)’র সভাপতি এ কে এম মহিউদ্দিন আহাম্মেদ বাবলু,  ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-ন্যাপ ভাসানীর চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল হাই সরকার,  ন্যাশনাল কংগ্রেস বাংলাদেশ (এনসিবি)’র চেয়ারম্যান ছাবের আহমেদ (কাজী ছাব্বীর), ন্যাশনাল পিপলস্ পার্টি (এনপিপি)’র প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ মাহমুদুল হক আক্কাছ, ভাইস চেয়ারম্যান ওয়াহিদুজ্জামান বাচ্চু,  সেলিম মাহমুদ, মোঃ আকতার হোসেন, যুুগ্ম মহাসচিব ও ন্যাশনাল পিপলস্ স্বেচ্ছাসেবক পার্টি’র সভাপতি মোঃ এমাদুল হক রানা, ঢাকা মহানগর উত্তরের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোঃ গিয়াস উদ্দিন, ঢাকা মহানগর দক্ষিনের সাধারন সম্পাদক মোঃ আরিফুর রহমান সুমন, ঢাকা মহানগর উত্তরের সহ-সভাপতি মোঃ জাকির হোসেন ভূইয়া, ন্যাশনাল পিপলস্ মহিলা পার্টির আহবায়ক ফেরদৌসী আক্তার (নীলা মল্লিক), ন্যাশনাল পিপলস্ শ্রমিক পার্টি’র আহবায়ক মোঃ আবুল কালাম জুয়েল, যুব পার্টি’র ময়মনসিংহ জেলার আহবায়ক মোঃ আল মামুন দেওয়ান,্ যুব পার্টি’র খুলনা মহানগরের আহবায়ক মোঃ মনিরুজ্জামান মনি, যুব পার্টি’র কিশোরগঞ্জ জেলার সদস্য সচিব মোঃ মকবুল হুসাইন প্রমুখ।
অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ন্যাশনাল পিপলস্ পার্টি (এনপিপি)’র সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব মোঃ জাহিদুর রহমান।

শেয়ার করুন

একই ধরনের আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2020 dailyshirshosongbad
Developed By NCB IT